Breaking News
Home / এক্সক্লুসিভ / ভাগ্নিকে দিয়ে প’তি’তাবৃত্তি করাতো মামি, সুযোগে ভো’গ করতো মামা

ভাগ্নিকে দিয়ে প’তি’তাবৃত্তি করাতো মামি, সুযোগে ভো’গ করতো মামা

রাজধানীর উ’ত্তর বাড্ডায় মামা-মামির বিরুদ্ধে দশম শ্রেণি পড়ুয়া ভাগনিকে দে’হ ব্যবসায় নামানোর অ’ভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় ভু’ক্তভো’গীর বাবা বা’দী হয়ে বাড্ডা থানায় মামলা করেছেন।

এরই মধ্যে মামি রুমাকে (৩২) গ্রেফতার করেছে পুলিশ। বাড্ডা থানার ওসি আবুল কালাম আজাদ এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন। এদিকে বৃহস্পতিবার ভু’ক্তভোগী ওই কিশোরীকে স্বাস্থ্য পরীক্ষার

জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে (ওসিসি) ভর্তি করা হয়েছে। ভুক্তভোগীর বাবা বলেন, মেয়ে যখন চতুর্থ শ্রেণিতে পড়ার সময় স্ত্রীর বড় ভাইয়ের বাসায় লেখাপড়ার জন্য পাঠাই।

এখন মেয়ে ১০ম শ্রেণিতে পড়ে। তিন বছর ধরে মেয়েকে দিয়ে খা’রাপ কাজ করায় তার মামা ও মামি। ওর মামা নিজেও তার সঙ্গে খা’রাপ কাজ করেছে।

তিনি আরো বলেন, মেয়ের সঙ্গে আমাদের যোগাযোগ করতে দিত না তার মামা ও মা। পরে মেয়ে আমার কাছে সব খুলে বলে। ওর মামি রুমা ও রুমার বড় বোন তাকে দিয়ে দেহ ব্যবসা করাতো।

তার মামা হান্নান চাপরাশি, মামি রুমা ও মামির বড় বোনের নামে বাড্ডা থানায় মাম’লা করেছি। এরপর রুমাকে গ্রে’ফতার করে পুলিশ। তার মামা হান্নান চাপরাশি এখন প’লাতক।

বাড্ডা থানার ওসি আবুল কালাম আজাদ বলেন, ভাগনিকে দিয়ে মামা-মামি প’তিতাবৃত্তি’ করাতো। ওর মামি তাকে প’তিতাবৃত্তি করতে বাধ্য করতো। পরে মেয়ের বাবা বাদী হয়ে মা’নবপা’চার আইনে মাম’লা করেন।

ভু’ক্তভো’গীর মামি রুমাকে গ্রে’ফতার করা হয়েছে। তার মামা হান্নান প’লাতক রয়েছে। তাকে গ্রে’ফতারে চেষ্টা করছি। তিনি আরো বলেন, জানতে পেরেছি, মেয়ের বাবা ওই ঘটনা ধা’মাচা’পা দিতে দুই লাখ টাকা আদায়ের চেষ্টা করেন। তবে আমরা মেয়ের বক্তব্যের ওপর ভিত্তি করে মাম’লা নিয়েছি।

About mk tr

Check Also

বিনা টাকায় পুলিশের চাকরি পেল মেয়ে, কাঁদলেন মা

দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে অনেক পুলিশ বিতর্কের জন্ম দিচ্ছে৷ গুটিকয়েক পুলিশ সদস্যের নীতিভ্রষ্টতার কারণে এমন …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *